Header Ads

জানুন টালিউড অভিনেতারা ছবি প্রতি কত পারিশ্রমিক পান।

কলকাতা তারকাদের ছবি প্রতি পারিশ্রমিক!
টালিউড তারকাদের পারিশ্রমিক!


[পারিশ্রমিক : টালিউড]

জানুন টালিউড অভিনেতারা ছবি প্রতি কত পারিশ্রমিক পান। 


অভিনেতারা সিনেমায় অভিনয় করাকেই পেশা বানিয়ে ফেলে। ফলে দর্শকদের মন জয় করার পাশাপাশি প্রযোজকদের কাছ থেকেও কাঁড়ি কাঁড়ি অর্থ আয় করেন তারা। অনেকটা ’রথ দেখা কলা বেঁচা’র মতই তাদের পেশা। একদিকে পর্দায় হিরোগিরি করে দর্শকদের মনে স্থান নেয় অন্যদিকে প্রযোজকদের সফল ছবি উপহার দিয়ে নিজেদের আয়কে সমৃদ্ধ করে। 

তবে টালিউড অভিনেতারা হলিউড-বলিউড তারকাদের মত ছবি প্রতি তেমন পারিশ্রমিক পান না। টালিউড বাজার অনেক ছোট হওয়ার এই ইন্ডাস্ট্রির নির্মাণকৃত ছবির বাজেটও অনেক কম হয়। ফলে অভিনেতারাও অনেক কম পারিশ্রমিক পান। আবার বর্তমানে অনেক অভিনেতা ছবি প্রতি পারিশ্রমিক না নিয়ে নিজেরায় ছবির উপর লগ্নি করে। ফলে ছবির আয়ের সিংহ ভাগ নিজেদের পকেটে চলে যায়। 


টালিউডের কোন অভিনেতা ছবি প্রতি কত পারিশ্রমিক পান তা আলোচনা করা হল :

১. প্রসেনজিৎ

প্রসেনজিৎ চ্যাটার্জী কলকাতায় জনপ্রিয় নায়ক। টালিউডের ‘বুম্বা দা’ খ্যাত এ নায়ক টালিউডকে অনেকবার একাই টেনে নিয়ে এসেছেন। আশি দশক থেকে কলকাতার সিনেমায় অভিনয় শুরু করেন তিনি। সে সময়ের অনেক নায়ক তাপস পাল, চিরঞ্জিবরা বর্তমানে সহযোগী অভিনেতা হিসেবে অভিনয় করে আসলেও প্রসেনজিৎ এখানো কে্ন্দ্রীয় চরিত্রে অভিনয় করেন। ফলে কলকাতায় বর্তমান অভিনেতাদের পাশাপাশি এখনো সমান জনপ্রিয় প্রসেনজিৎ চ্যাটার্জী। যার কারণে প্রযোজকদের কাছে বেশ কদর আছে এ অভিনেতার। ফলশ্রুতিতে প্রতি বছর একাধিক ছবি মুক্তি পাই তাঁর। বাংলা সিনেমার ক্ল্যাসিক ছবি ১৯৮৭ সালে ‘অমর সঙ্গী’ করে সর্বাধিক জনপ্রিয়তা লাভ করা এ অভিনেতা ৫০ বছর বয়সেও দর্শকদের উপহার দিয়েছেন ‘বাইশে শ্রাবণ’, ‘অটোগ্রাফ’, ’মিশর রহস্য’, ‘জাতিষ্মর’ ‘জুলফিকার’, ‘ইয়েতি অভিযান’ এর মত বিখ্যাত সব সিনেমা। তাঁর সর্বশেষ অভিনীত ছবি ‘ময়ূরাক্ষী’ গেল বছরের শেষ সপ্তাহে মুক্তি পাই। ছবিটি বাংলার সেরা ছবি হিসেবে জাতীয় পুরুষ্কার অর্জন করে। শীঘ্রই এ তারকার ‘দৃষ্টিকোণ’ মুক্তি পাচ্ছে। টালিউডের জনপ্রিয় এ অভিনেতা ছবি প্রতি এখানো ১৫ লক্ষ থেকে ২০ লক্ষ টাকা পর্য্ন্ত পারিশ্রমিক নেন। সেই সাথে অনেক ছবি থেকে প্রফিট শেয়ার নিয়ে থাকেন।

২. জিৎ

প্রসেনজিতের পর টালিউডকে হাল ধরেন জিৎ। এর মধ্যে অনেকে অভিনয়ে আসলেও ২০০২ সালে মুক্তি পাওয়া ‘সাথী’ দিয়ে জিতেন্দ্র মাদনানী তথা জিৎ কলকাতা বক্সঅফিসকে একটি সফল ছবি উপহার দেন। সেই সাথে জানান দেন টালিউডকে অন্য উচ্চতায় নিয়ে যাওয়ার। যার মাধ্যমে মুক্তি পেতে থাকে ‘সঙ্গী’, ’বন্ধন’, ’নাটের গুরু’, ’শুভ দৃষ্টি’র মত জনপ্রিয় সব ছবি। প্রযোজকদের পছন্দের নায়ক জিৎ ২০১০ সালের শুরুতে ‘ওয়ানটেড’ দিয়ে আবারো নিজের জাত চেনান। এর পর একে একে মুক্তি পায় ‘আওয়ারা’, ‘বস’, ‘বাদশা’, ’বচ্চন’, ‘দুই পৃথিবী’ ইত্যাদি জনপ্রিয় সব ছবি। এর মধ্য ‘আওয়ারা’ ও ‘বস’ টালিউডে সময়ের সর্বাধিক আয় করা ছবিতে স্থান লাভ করে। গেল বছর তার মুক্তি পাওয়া ছবি ‘বস ২’ বাংলাদেশ ও ভারতে সুপারহিট ব্যবসা করে। চলতি বছর এ তারকা ‘ইন্সপেক্টর নটি কে’ মুক্তি পাই। ছবি প্রতি এই অভিনেতা ২০ লক্ষ থেকে ২৫ লক্ষ পর্য্ন্ত টাকা পারিশ্রমিক নিয়ে থাকেন। তাছাড়া এ অভিনেতা নিজেই প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান খুলে ছবি নির্মাণে লগ্নি করছেন। ফলে কোন পারিশ্রমিক না নিয়ে ছবির আয়ের লাভ নিজের ব্যাংক একাউন্টে জমিয়েছেন এ অভিনেতা। এ অভিনেতার পরবর্তী ছবি ‘সুলতান - দ্যা সেভিয়ার’ ঈদে মুক্তি পাবে!

৩. দেব

বর্তমানে টালিউডের সবচেয়ে জনপ্রিয় নায়ক দেব। ‘টালিউডের খোকা’ খ্যাত এ অভিনেতার আসল নাম দীপক অধিকারী। রচনা ব্যানার্জীর সাথে ২০০৬ সালে ‘অগ্নিশপথ’ দিয়ে টালিউডে যাত্রা শুরু করলেও ছবিটি বক্সঅফিসে চরমভাবে ব্যর্থ হয়। অতঃপর ২০০৭ সালে ‘আই লাই ইউ’ দিয়ে নিজের আসন পাকাপোক্ত করেন এ অভিনেতা। টালিউডকে এরপর উপহার দিতে থাকেন ‘প্রেমের কাহিনী’, ‘চ্যালেঞ্জ’, ’লে ছক্কা’, ‘পাগলু’, ’খোকাবাবু’, ‘পরাণ যায় জ্বলিয়া রে’, ‘চাঁদের পাহাড়’ সহ একাধিক ব্যবসা সফল ছবি। বিশেষ করে ২০১৭ সালে মুক্তি পাওয়া সর্বাধিক ব্যয়বহুল ‘আমাজন অভিযান’ টালিউডের সবচেয়ে বেশি আয় করা ছবির স্থান লাভ করে। ফলে টালিউডের সর্বাধিক ব্যয়বহুল ও সর্বাধিক আয় করা ছবির অভিনেতা হন এই তারকা। সময়ের জনপ্রিয় এই অভিনেতা ছবি প্রতি ২৫ লক্ষ থেকে ৩০ লক্ষ টাকা পর্য্ন্ত পারিশ্রমিক নিয়ে থাকেন। সেই সাথে নিজেই প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান খুলে ছবি নির্মাণ করছেন। ২০১৭ সালে ’চ্যাম্প’‘ককপিট’ এর পর চলতি বছর ‘কবীর’ নিজের প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান থেকে নির্মাণ করে মুক্তি দেওয়া হয়।  

৪. সোহাম

টালিউডের জনপ্রিয় অভিনেতা সোহাম চক্রবর্তী ছোটবেলা থেকেই কলকাতার সিনেমার সাথে জড়িয়ে আছে। ছোটবেলায় শিশু শিল্পী ‘মাস্টার বিট্টু’ হিসেবে একাধিক ছবিতে অভিনয় করার পর নায়ক হিসেবেও টালিউডকে বেশ জমিয়ে তুলেছে। এই অভিনেতার সাড়া জাগানো সিনেমা গুলির মধ্যে উল্লেখযোগ্য হল ‘বাজিমাত’, ‘প্রেম আমার’ ‘অমানুষ’, ’বোঝেনা সে বোঝেনা’, ’ফান্দে পড়িয়া বগা কান্দেরে’, ‘ব্ল্যাক’ ইত্যাদি। এর মধ্যে ২০০৯ সালে মুক্তি পাওয়া ‘প্রেম আমার’ এবং ২০১২ সালে মুক্তি পাওয়া ’বোঝেনা সে বোঝেনা’ এই তারকার সর্বাধিক ব্যবসা সফল ছবি। চলতি বছর এ তারকার ’হানিমুন’ ও ‘রঙ বেরঙের কড়ি’ নামে দুইটি ছবি মুক্তি পাই। ছবি প্রতি এই তারকা ১০ লক্ষ থেকে ১২ লক্ষ টাকা পর্য্ন্ত পারিশ্রমিক নিয়ে থাকেন।

৫. অঙ্কুশ

অঙ্কুশ হাজরা টলিউডে বর্তমান সময়ের জনপ্রিয় একজন অভিনেতা। ‘খিলাড়ি’ খ্যাত এ অভিনেতা ২০১০ সালে ‘কেল্লাফতে’ সিনেমা দিয়ে যাত্রা শুরু করলেও ২০১২ সালে মুক্তি পাওয়া দ্বিতীয় ছবি ‘ইডিয়ট’ দিয়ে টলিউডে নায়ক হিসেবে স্থায়ী আসন পাকাপোক্ত করে। টলিউডের সেরা নাচিয়ে এ অভিনেতা ‘কানামাছি’, ‘খিলাড়ি’, ‘কি করে তোকে বলব’, ‘হরিপদ ব্যান্ডওয়ালা’ মত ছবি উপহার দিয়েছে। ২০১৪ সালে মুক্তি পাওয়া যৌথ প্রযোজনার ছবি ’আমি শুধু চেয়েছি তোমায়’  এ অভিনেতার সবচেয়ে ব্যবসা সফল ছবি। তাছাড়া মাল্টিস্টারদের ছবি ‘জামাই ৪২০’, ‘কেলোর কীর্তি’ , ’জুলফিকার’এ ও এ অভিনেতা সফলতার ছাপ রেখেছে। এ তারকার সর্বশেষ ছবি দুর্গাপূজা ২০১৭ উপলক্ষে ‘বলো দুগ্গা মাঈকী’ মুক্তি পাই। এ বছর মুক্তি পাচ্ছে ‘ডি ফর ড্যান্স’ ছবিটি। ছবি প্রতি এই অভিনেতা ১০ লক্ষ থেকে ১৫ লক্ষ টাকা পর্য্ন্ত পারিশ্রমিক নিয়ে থাকেন।

৬. পরমব্রত

টালিউডের গুণী অভিনেতা পরমব্রত চ্যাটার্জী একি সাথে পরিচালকও। ‘জিও কাকা’ পরিচালনার মধ্য দিয়ে টলিউডে পরিচিতি শুরু হয় পরমব্রতের। হিন্দি সিনেমা ‘কাহানী’ তে অভিনয় করে সমগ্র ভারতবর্ষে জনপ্রিয়তা পাওয়া এ অভিনেতা টলিউডকে ’ভূতের ভবিষ্যৎ’, ‘হেমলক সোসাইটি’, ‘হাওয়া বদল’, ‘অপুর পাঁচালি’ ইত্যাদি সফল ছবি উপহার দিয়েছেন। এ অভিনেতা টালিউডের পাশাপাশি বলিউড ও ডালিউডেও অভিনয় করেছেন। ২০১৭ সালে প্রথমবারের মত ঢালিউডে ‘ভুবন মাঝি’ ও ‘ভয়ংকর সুন্দর’ নামে দুইটি ছবি মুক্তি পেয়েছে। ২০১৮ সালে মুক্তি পেয়েছে বলিউডের অনুশকা শর্মার সাথে অভিনয় করা হরর মুভি ’পারি’। গুণী এ অভিনেতা ছবি প্রতি ১০ লক্ষ থেকে  ১২ লক্ষ টাকা পর্য্ন্ত পারিশ্রমিক নিয়ে থাকেন।

পড়ুন : টালিউড স্টার র‌্যাংক ২০১৮: বক্স অফিসে সেরার লড়াই-এ যে তারকা এগিয়ে!

৭. আবির

টালিউডের নতুন ‘বোমক্যাশ বক্সী‘ আবীর চট্টোপাধ্যায় ২০০৯ সালে মুক্তি পাওয়া ‘ক্রস কানেকশন’ দিয়ে নায়ক হিসেবে যাত্রা শুরু করেন। ‘বোমক্যাশ বক্সী’ সিরিজ ও ‘ফেলুদা’ দিয়ে জনপ্রিয়তা পাওয়া এ অভিনেতা ‘রাজকাহিনী’, ‘দ্যা রয়েল ব্যাঙ্গল টাইগার’, ‘যেখানে ভূতের ভয়’, ‘বেডরুম’ ইত্যাদি জনপ্রিয় সব ছবি টালিউডকে উপহার দিয়েছেন। ২০১৭ সালে এ অভিনেতার মুক্তি পাওয়া  ‘বিসর্জন’ সুপারহিট ব্যবসা করে। টালিউডের এ অভিনেতা ছবি প্রতি ৮ লক্ষ থেকে  ১০ লক্ষ টাকা পর্য্ন্ত পারিশ্রমিক নিয়ে থাকেন।

৮. যিশু

প্রাক্তন ক্রিকেটার যিশু সেনগুপ্ত টালিউডে ’যিশু’ নামেই অধিক জনপ্রিয়। ২০০১ সালে ‘একটু ছোঁয়া’ দিয়ে টালিউডে যাত্রা শুরু করে। এর পরের বছরই ’মনের মাঝে তুমি’ ছবিতে অভিনয় করে সর্বাধিক পরিচিতি লাভ করে। এ অভিনেতার উল্লেখযোগ্য ছবি ‘বর আসবে এখুনি’, ’নৌকাডুবি’, ‘ব্যোমকেশ সিরিজ’, ‘চিত্রাঙ্গদা : দ্যা ক্রোয়িং উইশ’ ইত্যাদি। ২০১৭ সালে মুক্তি পাওয়া প্রথম সুপারহিট ছবি ‘পোস্ত’ ছাড়াও ‘দ্যা বং এগেইন’ এবঙ ‘বোমক্যাশ ও অগ্নিবান’ সফলতার ছাপ রেখেছে। ছবি প্রতি টালিউডের এ অভিনেতা  ৭ লক্ষ থেকে  ১০ লক্ষ টাকা পর্য্ন্ত পারিশ্রমিক নিয়ে থাকেন।

৯. বনি

টালিউডের নতুন মুখ বনি দাশগুপ্ত ২০১৪ সালে ‘বরবাদ’ সিনেমা দিয়ে যাত্রা শুরু করেন। নতুন এ অভিনেতার ২০১৫ সালে মুক্তি পায় ‘পারবনা আমি ছাড়তে তোকে’ এবং ২০১৭ সালে মুক্তি পায় ‘তোমাকে চাই’ ও ‘জিও পাগলা’। তার মুক্তি পাওয়া ছবিগুলো দর্শকদের কাছে বেশ গ্রহণযোগ্যতা পেয়েছে। ২০১৮ সালে এ অভিনেতার ’রাজা রানী রাজি’ মুক্তি পেলেও, খুব একটা আলোড়ন তুলতে পারে নি।  টালিউডে নতুন এ অভিনেতা ছবি প্রতি ৫ লক্ষ থেকে ৮ লক্ষ টাকা পর্য্ন্ত পারিশ্রমিক নিয়ে থাকেন।

১০. যশ

টালিউডের আরেক নতুনমুখ যশ দাশগুপ্ত ২০১৬ সালে দুর্গা পূজায় ‘গ্যাংস্টার’ দিয়ে যাত্রা শুরু করে। ছোট পর্দার জনপ্রিয় যশ বড় পর্দায় নতুন হলেও ’গ্যাংস্টার’ এ অভিনয় করে জানান দিয়েছেন যে টালিউডে নায়কের লিস্টকে সমৃদ্ধ করতেই তার জন্ম হয়েছে। ‘গ্যাংস্টার’ এর পর ২০১৭ সালে  মুক্তি পেয়েছে এ অভিনেতার ‘ওয়ান’ সিনেমাটি। অ্যাংরি লুকিং এর এ অভিনেতা ২০১৮ সালে মুক্তি দিয়েছে ‘টোটাল দাদাগিরি’। টালিউডের নবাগত এ অভিনেতা ছবি প্রতি ৫ লক্ষ থেকে ৭ লক্ষ টাকা পর্য্ন্ত পারিশ্রমিক নিয়ে থাকেন।

পড়ুন : কলকাতার তারকা দেব-এর পূর্ণাঙ্গ বক্স অফিস রিপোর্ট বিশ্লেষণ!

বি.দ্র: অভিনেতা কিংবা ছবির প্রযোজকরা ‘তারকাদের পারিশ্রমিক’ নিয়ে কোন তথ্য প্রকাশ না করায় ঠিক কোন তারকা, কি পরিমাণ পারিশ্রমিক পাচ্ছে তা শতভাগ সঠিক বলা সম্ভব নয়। কিন্তু ভক্তদের জন্য টালিউড তারকাদের ছবি প্রতি নেয়া পারিশ্রমিক বিভিন্ন তথ্য-উপাত্ত বিশ্লেষণ, বিভিন্ন ওয়েবসাইট অনুসন্ধান, অভিনেতার প্রতি তারকাদের আগ্রহ, ছবির বাজেট, টালিউড বক্সঅফিস চাহিদা ইত্যাদি পর্যালোচনা করে তুলে ধরা হল। পাঠকদের সর্বাধিক সঠিক তথ্য দেওয়ার জন্য পুরো এক মাস ধরে ‘জানুন টালিউড অভিনেতারা ছবি প্রতি কত পারিশ্রমিক পান’ এর জন্য কাজ করেছেন ‘রঙধারা টীমের’ পাঁচ জন সদস্য। যার ফলে বর্তমান জনপ্রিয়তা বিবেচনায় টালিউডের বেশ কিছু উল্লেখযোগ্য তারকা বাদ পড়েছেন। এ আর্টিকেল নিয়ে কোন পরামর্শ কিংবা অভিযোগ থাকলে কমেন্ট করে জানাতে পারেন। ধন্যবাদ!

লক্ষ্য করুণ : 
আর্টিকেলটি লেখা হয়েছে: আগস্ট-২০১৭
আর্টিকেলটি আপডেট করা হয়েছে : এপ্রিল ২০১৮

কোন মন্তব্য নেই

Blogger দ্বারা পরিচালিত.